প্রবাসীদের খবর

প্রবাসী কর্মীদের জন্য শনিবার থেকে বিশেষ ফ্লাইট চালু

ডেস্ক রিপোর্ট, সোনারগাঁ টাইমস২৪ ডটকম:

করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে সরকারি ঘোষিত চলমান কঠোর বিধিনিষেধে প্রবাসী কর্মীদের জন্য পাঁচটি দেশে যেতে বিশেষ ফ্লাইট চালু করছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

পাঁচটি দেশ হচ্ছে- সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ওমান, কাতার ও সিঙ্গাপুর।

এসব দেশে গমনেচ্ছু প্রবাসী কর্মীদের মধ্যে যাদের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় কর্তৃক ইস্যুকৃত বিএমইটি ক্লিয়ারেন্স রয়েছে, তাদের বিদেশ যেতে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার রাতে মন্ত্রী পর্যায়ের এক অনলাইন বৈঠকের পর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এতে বলা হয়, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ওমান, কাতার ও সিঙ্গাপুরে গমনেচ্ছু আটকে পড়া প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য শনিবার থেকে বিশেষ ফ্লাইট চালু হচ্ছে।

এক্ষেত্রে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সসহ বাংলাদেশি অন্যান্য এয়ারলাইন্স এবং সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর ন্যাশনাল ক্যারিয়ারসহ অন্যান্য ক্যারিয়ার বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারবে।

ভিজিট ভিসা নিয়ে যেসব বাংলাদেশি কাজের উদ্দেশ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাত যাবেন তারা বিএমইটির ছাড়পত্র নিয়ে যেতে পারবেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, বিগত তিন দিন ধরে যেসব যাত্রী টিকেট কেনার পরও লকডাউনের কারণে বিদেশ যেতে পারেননি, তাদের বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স বা সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর ন্যাশনাল ক্যারিয়ারের অতিরিক্ত বিশেষ ফ্লাইটের মাধ্যমে বিদেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।

লকডাউনে বিমানবন্দরে পৌঁছাতে বিদেশগামীদের যা লাগবে- আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে বাসা থেকে বের হওয়ার কারণ জানতে চাওয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে বিমানবন্দরে আসার পথে বিদেশগামী কর্মীদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর জিজ্ঞাসার মুখে পড়লে পাসপোর্ট/ভ্যালিড ভিসা/বিমানের টিকিট/বিএমইটি কার্ড অথবা নিরাপত্তা এজেন্সি কর্তৃক ইস্যুকৃত পাস সঙ্গে রাখতে হবে। যথাযথ ডকুমেন্ট প্রদর্শন করতে পারলে পুলিশ কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশের বিভিন্ন পয়েন্টে ডকুমেন্টধারীদের অভ্যন্তরীণ চলাচলে যথাযথ সহযোগিতা প্রদান করবে বলে জানায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

যেসব যাত্রী ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম থেকে ভ্রমণ করার জন্য টিকেট কিনেছেন, তাদের বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কানেকটিং ফ্লাইটের মাধ্যমে ঢাকায় আনা যাবে।

৫টি দেশ ব্যতীত অন্যান্য দেশে যেতে প্রবাসীদের যা করতে হবে- তাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ছাড়পত্র সাপেক্ষে ট্রানজিট-প্যাসেঞ্জার হিসেবে বিশেষ ফ্লাইটে ভ্রমণ করতে হবে।

দেশে ফেরা প্রবাসীদের যেসব নিয়ম মানতে হবে- বর্তমান করোনা পরিস্থিতির মধ্যে প্রবাসী বাংলাদেশিরা জরুরি প্রয়োজনে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের শর্তে দেশে আসতে পারবেন।

এক্ষেত্রে প্রত্যেক যাত্রীকে কোভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট বাধ্যতামূলকভাবে প্রদর্শন করতে হবে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, দেশে ফিরতে চাওয়া প্রবাসী কর্মীদের তালিকা প্রস্তুত করবে বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশ মিশনগুলো। বিদেশ থেকে ফেরত যাত্রীদের ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতের জন্য সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ দিয়াবাড়ি, চট্টগ্রাম ও সিলেটে পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নিয়ে রাখবে।

৫টি দেশ থেকে যেসব যাত্রী দেশে আসবেন, তাদের বোর্ডিংয়ের আগেই কোয়ারেন্টাইনের জন্য নির্দিষ্ট হোটেলে বুকিং নিশ্চিত করতে হবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সভাপতিত্বে আন্তমন্ত্রণালয় সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব, বেবিচক চেয়ারম্যান, বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সংযুক্ত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button