আদালত পাড়া

সোনারগাঁয়ে হেফাজত ইস্যু; মামলার সবশেষ পরিস্থিতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, সোনারগাঁ টাইমস২৪ ডটকম :

গত ৩ এপ্রিল, ২০২১ইং তারিখে সোনারগাঁ রয়েল রির্সোটে হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনিল হকের ঘটনাকে কেন্দ্র করে হেফাজত অনুসারীদের হামলায় ভাংচুর হওয়া- রয়েল রির্সোট, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতার বাড়ীঘর ও আ’লীগের পার্টি অফিস ভাংচুরের ঘটনায় পুলিশ ও আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী, এবং ক্ষতিগ্রস্থরা বাদী হয়ে ৭টি মামলা দায়ের করেছেন।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে গরীবের উকিল নামে খ্যাত নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য, এডভোকেট মো: ফিরোজ মিয়া বলেন- সোনারগাঁ থানায় হেফাজত নেতা ও কর্মীদের বিরুদ্ধে এখন পযর্ন্তন ৭টি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং মামলাগুলো হলো-

এস টিভির সাংবাদিক মো: হাবিবুর রহমান (৪২), পিতা-মৃত আমজাদ হোসেন লাল মিয়া, সাং-ভাটিরচর, থানা-সোনারগাঁ, জেলা-নারায়ণগঞ্জ, বাদী হয়ে ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ৭০/৮০ জনের নামে সোনারগাঁ থানায় মামলা করেন। যাহার নং-০৫(৪)২১, তারিখ-৬/৪/২১ইং
ধারা ১৪৩/৪৪৮/৩২৩/৩২৫/৩২৭/৩৭৯/ ৪২৭/৫০৬ দন্ডবিধি-১৮৬০ তৎসহ ২৯/৩১ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮। এই মামলাটি তদন্তের দায়িত্বে আছেন সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) মো: নুরুল ইসলাম।

সোনারগাঁ থানার এসআই (নি:) আরিফ হাওলাদার, বাদী হয়ে ৪২ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ২৫০/৩০০ জনের নামে মামলা করেন। যাহার নং-০৬(৪)২১, তারিখ-৬/৪/২১ইং
ধারা: ৬(২) এর (অ)/ ৬(২) এর (আ)/ ৬(২) এর (ই)/ ৬(২) এর (ঈ)/ ৬(২) এর (উ)/১২/১৩, সন্ত্রাস বিরোধী আইন-২০০৯ (সংশোধনী-২০১৩) এবং এবং এই মামলাটি তদন্তের দায়িত্বে আছেন ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) মো: সাইদুজ্জামান।

সোনারগাঁ থানায় এসআই (নি:) ইয়াউর রহমান, বাদী হয়ে ৪১ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ২৫০/৩০০ জনের নামে মামলা করেন। যাহার নং-০৭(৪)২১, তারিখ-৬/৪/২১ইং। ধারা: ১৪৭/১৪৮/ ১৪৯/৪৪৮/৩৩২/৩৩৩/৩৫৩/১৮৬/ ৪২৭ /৫০৬ দন্ডবিধি-১৮৬০। এই মামলাটি তদন্তের দায়িত্বে আছেন ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) খন্দকার তাবিদুর রহমান।

সাবেক নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হাজী মো: শাহ্ সোহাগ রনির পিতা মো: শাহ্ জামাল (তোতা) (৬৪), পিতা-মৃত মজিবর রহমান, সাং-ফুলবাড়ীয়া, থানা-সোনারগাঁ, জেলা-নারায়ণগঞ্জ বাদী হয়ে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ২০০/৩০০ জনের নামে মামলা করেন।
যাহার নং-১২(৪)২১, তারিখ-৯/৪/২১ইং
ধারা: ৬(২) এর (অ)/ ৬(২) এর (আ)/ ৬(২) এর (ই)/ ৬(১) (ক) এর (ঈ)/ ৬(২) এর (উ)/১২/১৩, সন্ত্রাস বিরোধী আইন-২০০৯ (সংশোধনী-২০১৩) তৎসহ ৩৮০/৫০৬ দন্ডবিধি-১৮৬০। এই মামলাটি তদন্তের দায়িত্বে আছেন সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) মো: রাকিবুল ইসলাম উজ্জল।

সোনারগাঁ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো: রফিকুল ইসলাম নান্নু (৪৫), পিতা-মৃত মোস্তফা মিয়া, সাং-গোহাট্টা, থানা-সোনারগাঁ, জেলা-নারায়ণগঞ্জ বাদী হয়ে ১২২ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ১৫০/২০০ জনের নামে মামলা করেন। যাহার নং-১৩(৪)২১, তারিখ -৯/৪/২১ইং, ধারা: ৬(২) এর (অ) / ৬(২) এর (আ)/ ৬(২) এর (ই)/ ৬(১) এর (ঈ)/ ৬(২) এর (উ)/১২/১৩, সন্ত্রাস বিরোধী আইন-২০০৯ (সংশোধনী-২০১৩) তৎসহ ৪৩৫/৩৮০/ ৫০৬ দন্ডবিধি-১৮৬০। এই মামলাটি তদন্তের দায়িত্বে আছেন সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) মো: ইয়াউর রহমান।

সোনারগাঁ উপজেলা যুবলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো: নাসির উদ্দিন আহম্মেদ (৪৫), পিতা-মৃত সামসুদ্দিন, সাং-ছোট সাদিপুর, থানা-সোনারগাঁ, জেলা-নারায়ণগন্জ বাদী হয়ে ১১১ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ২০০/২৫০ জনের নামে মামলা করেন।
যাহার নং-১৪(৪)২১, তারিখ-৯/৪/২১ইং
ধারা: ৬(২) এর (অ)/ ৬(২) এর (আ)/ ৬(২) এর (ই)/ ৬(১) এর (ঈ)/ ৬(২) এর (উ)/১২/১৩, সন্ত্রাস বিরোধী আইন-২০০৯ (সংশোধনী-২০১৩) তৎসহ ৪৩৫/৫০০/৩৮০/৪২৭/৫০৬ দন্ডবিধি-১৮৬০। এই মামলাটি তদন্তের দায়িত্বে আছেন ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) মো: সাইদুজ্জামান।

সোনারগাঁ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো: রফিকুল ইসলাম নান্নুর শাশুরী মোসা: জোহরা বেগম (৬৫), পতি-মৃত নুরুল ইসলাম বেপারী, সাং-হাবিবপুর, থানা-সোনারগাঁ, জেলা-নারায়ণগঞ্জ বাদী হয়ে ১০৩ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ১৫০/২০০ জনের নামে মামলা করেন। যাহার নং-১৭(৪)২১, তারিখ -১০/৪/২১ইং, ধারা: ১৪৩/৪৪৭/ ৪৪৮/৩০৭/৩৮০/৪২৭/৫০৬ দন্ডবিধি -১৮৬০। এই মামলাটি তদন্তের দায়িত্বে আছেন সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) এস.এম শরিফুল ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button