সংবাদ মাধ্যম

করোনায় সাংবাদিক মৃত্যু

ডেস্ক রিপোর্ট, সোনারগাঁ টাইমস২৪ ডটকম:

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আজ রিফাতের মৃত্যু সহ দেশে এ পর্যন্ত ৩৫ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে এর আগ পর্যন্ত ৩৪ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছিল। এছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও ১৪ জন সংবাদকর্মী।

সবশেষ আজ শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) বিকেল পাঁচটার দিকে রাজধানীর ইমপালস হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ৭১ টিভির অ্যাসোসিয়েট নিউজ প্রডিউসার রিফাত সুলতানা।

তার আগে গত ১০ এপ্রিল করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান প্রবীণ সাংবাদিক হাসান শাহরিয়ার।

এছাড়াও দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া সাংবাদিকদের মধ্যে রয়েছেন বিশিষ্ট সাংবাদিক কামাল লোহানী, প্রথম আলোর যুগ্ম সম্পাদক মিজানুর রহমান খান, দৈনিক সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খন্দকার মুনীরুজ্জামানসহ আরও অনেকে।

সাংবাদিকদের ফেসবুক গ্রুপ ‘আমাদের গণমাধ্যম, আমাদের অধিকার’-এ এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, গত ২৮ মার্চ থেকে প্রতিদিন আক্রান্ত হচ্ছেন সাংবাদিকরা। এক মাসের ব্যবধানে ১২২ জন সাংবাদিক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

গত বছরের জুন মাসে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এবং উপসর্গ নিয়ে এক মাসে সর্বোচ্চ ৯ জন সাংবাদিক মারা যান।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি-ডিআরইউ’র সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমান খান বলেন, বর্তমানে সংগঠনের অন্তত ৫০ জন সদস্য করোনায় আক্রান্ত। কাউকে কাউকে বাসায় অক্সিজেন সরবরাহ করা হয়েছে। আক্রান্তদের অর্ধেকের কম হাসপাতালে শয্যা পেয়েছেন। বাকিরা বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন। অনেক সাংবাদিকের জন্য আইসিইউ বেড পাওয়া যাচ্ছে না।

এদিকে, জেনেভাভিত্তিক সংস্থা দ্য প্রেস এমব্লেম ক্যাম্পেইন (পিইসি) এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত বিশ্বের ৭৪টি দেশে এক হাজার ৬৩ জন সাংবাদিকের প্রাণহানি হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ১৭৪ জন মারা গেছেন ব্রাজিলে। ভারতে ৬৩ জন, বাংলাদেশে ৪৮ জন, পাকিস্তানে ২৩ জন, আফগানিস্তানে ৯ জন, নেপালে ৩ জন সাংবাদিক মারা গেছেন। সাংবাদিকদের প্রাণহানির সংখ্যার দিকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান ষষ্ঠ।

করোনাকালের শুরু থেকে চরম ঝুঁকি নিয়ে সাংবাদিকরা মাঠে কাজ করছেন। গত বছরের ২৮ এপ্রিল প্রথম করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান দৈনিক সময়ের আলোর প্রধান প্রতিবেদক হুমায়ুন কবির খোকন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button