নারায়ণগঞ্জশহরসারাদেশসোনারগাঁ

গানের অনুষ্ঠানে নাচানাচিকে কেন্দ্র করে যুবকের পেটে ছুরিকাঘাত

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় গানের অনুষ্ঠানে নাচানাচিকে কেন্দ্র করে জামাল হোসেন (৩০) নামের এক যুবককে ছুরিকাঘাত করে মারাত্মক জখম করা হয়েছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার (২৬ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টায় ফতুল্লার বক্তাবলী ইউনিয়নের রামনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত জামাল হোসেন ফতুল্লার বক্তাবলী ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের মৃত আমির হামজার ছেলে।

এদিকে ঘটনার পরপর উল্টো আহতের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করতে গিয়ে গ্রেফতার হন হৃদয় হোসেন বাবু ও রাসেল নামের দুই সন্ত্রাসী।

বাবুর বিরুদ্ধে কক্সবাজার থানা ও রাসেলের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মাদক মামলা রয়েছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) দুপুরে আহতের বড় ভাই আবুল হোসেন বাদী হয়ে গ্রেফতার দুজনসহ আটজনের নাম উল্লেখ করে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার বাদী আবুল হোসেন জানান, সোমবার রাতে প্রতিবেশী সলিমউদ্দিনের বাড়িতে গানবাজনার অনুষ্ঠান চলাকালে স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ীরা এসে বন্ধ করার জন্য হুমকি দেয়। সলিমউদ্দিনের ভাতিজা শুভ (১৮) প্রতিবাদ করায় সন্ত্রাসীরা তাকে মারধর করে চলে যায়। পরে শুভর চাচা জামাল শুভকে কেন মারধর করা হয়েছে, তা জিজ্ঞেস করতে গেলে তাদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে তার বুকে ও পেটে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে সড়কের পাশে ফেলে দেয় সন্ত্রাসীরা।

স্থানীয় লোকজন জামালকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। শরীরে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হওয়ায় তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, দুজন ব্যক্তি থানায় আসেন মারধরের মামলা করার জন্য। বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হলে খোঁজ নেয়া হয়। পরে জানা যায়, তারা জামাল হোসেন নামের এক যুবককে ছুরিকাঘাত করে থানায় এসেছেন। এরপর তাদের গ্রেফতার করে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে ছুরিকাঘাতের সত্যতা পেয়ে মামলা গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, আহত জামালের ভাই মামলাটি করেছেন। পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। হাসপাতালে ভর্তি হওয়া জামালের নিয়মিত খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button