সোনারগাঁ

সোনারগাঁও পৌরসভার অশ্লীল গান-বাজনার সমালোচনা সর্বত্র

ডেস্ক রিপোর্টে, সোনারগাঁ টাইমস ২৪ ডটকম : সোনারগাঁও পৌরসভায় ব্যাডমিন্টনে ফাইলান খেলা শেষে গভীর রাত পর্যন্ত অশ্লীল নাচ-গানের অভিযোগ উঠেলে খেলার আয়োজকদের বিরুদ্ধে নিউজ হয় নিউজ সোনারগাঁয়ে। নিউজ হওয়ার পর থেকে সোনারগাঁজুড়ে নিন্দার ঝর উঠে।

আলোচনায় আসে মুসলিম সমাজে এমন বেহায়াপনা চলতে দেয়া যায় না। খেলাকে উপলক্ষ করে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের নামে অশ্লীল গান-বাজনার সমালোচনায় মুখর ছিল পুরো পৌরসভা। তা এখন ছড়িয়েছে সোনারগাঁজুড়ে।

পৌরবাসীর সাথে কথা বলে জানাযায়, খেলাধুলা যুবকদের মনোবল বাড়ায় যা শরীর ও মনের জন্য অবশ্যকীয়। কিন্তু খেলা শেষে বিশাল প্যান্ডেল সাজিয়ে মানুষের ঘুম নস্ট করে গভীর রাত পর্যন্ত কয়েক হাজার যুবককে একত্রিত করে সাংস্কৃতিক বিনোদনের নামে বেহায়াপনা পৌরবাসীকে ব্যাথিত করেছে। যা সমাজের যুবকদের অক্ষয়ের দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

জানা গেছে, মুজিব বর্ষ উপলক্ষে সোনারগাঁও পৌরসভার উদ্যোগে ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়। ব্যাডমিন্টন খেলার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয় গতকাল শুক্রবার পৌরসভার শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে। ফাইনাল খেলা উপলক্ষে পুরো স্টেডিয়াম সাজানো হয় বাতি দিয়ে । ফাইনাল খেলায় সভাপতিত্ব করেন সিআইপি ফেরদৌস ভুইয়া মামুন।

খেলা শেষে আমন্ত্রিত অতিথিরা পুরস্কার বিতরন করে যাওয়ার পর খেলা আযোজকরা গভীর রাত পর্যন্ত এক কনসার্টের আয়োজন করেন। যেখানে বিভিন্ন এলাকায় কয়েক হাজার যুবক স্টেডিয়ামে এসে কনসার্ট উপভোগ করেন। কনসার্ট উপলক্ষে বিভিন্ন এলাকা থেকে কয়েকজন নারী শিল্পীকে এনে গান পরিবেশন করানো হয়। সেখানে দেখা যায় স্টেজে নারী শিল্পিরা বিভিন্ন অশ্লীল অঙ্গ-ভঙ্গিতে নেচে গেয়ে যুবকদের মাতিয়ে তুলেন। স্টেজে নারী শিল্পীদের সাথে দেখা যায় পৌরসভা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীসহ আরো কয়েকজন যুবককেও যারা নারী শিল্পিকে অশ্লীল নাচে উৎসাহ দিচ্ছিলেন। ব্যাডমিন্টন খেলার নামে একটি ওপের স্টেডিয়ামে নারীদের এরকম অশ্লীল নাচের সমালোচনা করেছেন পৌরবাসী।

নাম না প্রকাশ করা শর্তে অনেক পৌরবাসী জানান, লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলার কোন বিকল্প নেই। সে জন্য পৌরসভার যুবকদের মাদক থেকে দুরে রাখতে ব্যাডমিন্টন খেলার আয়োজন করে পৌরসভার কয়েকজন যুবক। যার অর্থের যোগা দিয়েছেন মামুন ভুইয়া। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিও ছিলেন মামুন ভুইয়া। কিন্তু কথা হলো ব্যাডমিন্টন খেলা শেষে গভীর রাত পর্যন্ত পৌরবাসীর ঘুম হারাম করে উচ্চ শব্দে গান গেয়ে শিল্পি নামে নারী এনে অশ্লীল নাচ গান করে কয়েক হাজার যুবককে একত্রিত করা খেলা আয়োজকদের কেমন ধরনের বিনোদন।

এতে সমাজের যুবকদের উপকারের চেয়ে তাদের অবক্ষয় বেশী হয়েছে বলে মনে করেন তারা। এ রকম অনুষ্ঠানের নামে বেহায়াপনা যাতে না হয় সেজন্য আয়োজকদের আরো যত্মশীল হওয়ার আহবান জানিয়েছেন পৌরসভার সুুশীল সমাজের ব্যক্তিরা।

সূত্র – নিউজ সোনারগাঁ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button